শিরোনাম
আইডিইবি ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড এন্টারপ্রেনার্স ডেভেলপমেন্ট এসোসিয়েশন এর কমিটি গঠন ডিজিটাল বাংলাদেশের পরবর্তী ধাপ ক্যাশলেস সোসাইটি : জয় এসএমই ফাউন্ডেশনের ১০০’ কোটি টাকা ঋণের ৩৩ শতাংশ পেয়েছেন নারী উদ্যোক্তারা নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের আঁতাতকরী বিএনপি নেতা নাসিরকে গনধোলাই দিলো কর্মীরা প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদনা নিয়ে স্বজনপ্রীতি সহ্য করা হবে না : ওবায়দুল কাদের করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় ৩২০০ কোটি টাকার নতুন প্রণোদনা প্যাকেজের ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের হাসেম ফুড পরিদর্শনে এসে বিএনপির দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, পুলিশের লাঠিচার্জ চলমান লকডাউন শিথিল, ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত কঠোর বিধি-নিষেধের প্রজ্ঞাপন জারি রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে জাতিসংঘে প্রস্তাব গৃহীত করোনা রোগীর চাপে চট্টগ্রাম মেডিকেলে সাধারণ রোগী ভর্তি বন্ধ করে দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৪৪ অপরাহ্ন

টি-টুয়েন্টি: অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম সিরিজ জয় নিউজিল্যান্ডের

ক্রীড়া ,পিআরবি নিউজ
আপডেট রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথমবারের মত টি-টুয়েন্টি সিরিজ জয়ের স্বাদ নিলো নিউজিল্যান্ড। আজ সিরিজ নির্ধারনী ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে ৭ উইকেটে হারায় নিউজিল্যান্ড। ফলে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৩-২ ব্যবধানে জিতলো কেন উইলিয়ামসনের দল।
এই সিরিজের আগে চারবার দ্বিপাক্ষীক টি-টুয়েন্টি সিরিজ খেলে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড। তিনটিতেই জিতেছিলো অসিরা। একটি সিরিজ ড্র হয়। ফলে অসিদের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের রেকর্ড ছিলো না নিউজিল্যান্ডের। অবশেষে সেই বন্ধ্যাত্ব ঘোচালো কিউইরা।

এবারের সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ জিতে চালকের আসনে ছিলো নিউজিল্যান্ড। তবে পরের দু’টি জিতে সিরিজে ২-২ সমতা আনতে পারে অস্ট্রেলিয়া। এতে পঞ্চম ও শেষ টি-টুয়েন্টিতে রুপ নেয় সিরিজ নির্ধারনী ম্যাচে। ওয়েলিংটনে অঘোষিত ফাইনালে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে অস্ট্রেলিয়া। তৃতীয় ওভারে অস্ট্রেলিয়ার ওপেনার জশ ফিলিপকে শিকার করেন নিউজিল্যান্ডের পেসার ট্রেন্ট বোল্ট। এরপর ৬৬ রানের জুটি গড়েন অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ ও ম্যাথু ওয়েড। ১০ম ওভারে ফিঞ্চ-ওয়েড জুটি ভাঙ্গেন নিউজিল্যান্ডের স্পিনার ইশ সোধি। ৩৬ রান করা ফিঞ্চকে শিকার করেন সোধি। এরপর উইকেটে গিয়ে সুবিধা করতে পারেননি গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। মাত্র ১ রান করেন তিনি। বড় ইনিংসের আভাস দেয়া ওয়েডকে ৪৪ রানে আটকে দেন বোল্ট। ২৯ বলে ৩টি চার ও ২টি ছক্কায় ৪৪ রান করেন ওয়েড। দলীয় ১০৩ রানে ওয়েডের বিদায়ের পর অস্ট্রেলিয়ার রানের লাগাম টেনে ধরে নিউজিল্যান্ডের বোলাররা। ফলে ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৪২ রানের মামুলি সংগ্রহ পায় অসিরা। পরের দিকে বলার মত ২৬ রান করেছেন মার্কুস স্টোয়িনিস। নিউজিল্যান্ডের সোধি ২৪ রানে ৩ উইকেট নেন।
১৪৩ রানের টার্গেটে উড়ন্ত সূচনা পায় নিউজিল্যান্ড। ৭১ বলে ১০৬ রান যোগ করে নিউজিল্যান্ডের জয়ের পথ সহজ করে ফেলেন দুই ওপেনার ডেভন কনওয়ে ও মার্টিন গাপটিল। নিউজিল্যান্ড শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন অস্ট্রেলিয়ার পেসার রিলি মেরেডিথ। ৩৬ রান করা কনওয়েকে শিকার করেন তিনি। পরের বলে উইলিয়ামসনকে খালি হাতে বিদায় দেন মেরেডিথ। দলীয় ১০৬ রানেই ২ উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। তবে অন্যপ্রান্তে টি-টুয়েন্টি ক্যারিয়ারের ১৭তম হাফ-সেঞ্চুরি তুলে ৭১ রানের ইনিংস খেলেন গাপটিল। ৪৬ বলে ৭টি চার ও ৪টি ছক্কা মারেন তিনি। গাপটিল ফিরলেও, ২ বল বাকী রেখেই নিউজিল্যান্ডের জয় নিশ্চিত করেন গ্লেন ফিলিপস ও মার্ক চাপম্যান। ফিলিপস ৩৪ ও চাপম্যান ১ রানে অপরাজিত থাকেন।
ম্যাচ সেরা হয়েছেন নিউজিল্যান্ডের গাপটিল ও সিরিজ সেরা হন সোধি।


এই বিভাগের আরো খবর
greengrocers

Categories

Archives