শিরোনাম
আইডিইবি ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড এন্টারপ্রেনার্স ডেভেলপমেন্ট এসোসিয়েশন এর কমিটি গঠন ডিজিটাল বাংলাদেশের পরবর্তী ধাপ ক্যাশলেস সোসাইটি : জয় এসএমই ফাউন্ডেশনের ১০০’ কোটি টাকা ঋণের ৩৩ শতাংশ পেয়েছেন নারী উদ্যোক্তারা নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের আঁতাতকরী বিএনপি নেতা নাসিরকে গনধোলাই দিলো কর্মীরা প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদনা নিয়ে স্বজনপ্রীতি সহ্য করা হবে না : ওবায়দুল কাদের করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় ৩২০০ কোটি টাকার নতুন প্রণোদনা প্যাকেজের ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের হাসেম ফুড পরিদর্শনে এসে বিএনপির দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, পুলিশের লাঠিচার্জ চলমান লকডাউন শিথিল, ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত কঠোর বিধি-নিষেধের প্রজ্ঞাপন জারি রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে জাতিসংঘে প্রস্তাব গৃহীত করোনা রোগীর চাপে চট্টগ্রাম মেডিকেলে সাধারণ রোগী ভর্তি বন্ধ করে দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:১৬ পূর্বাহ্ন

সাফল্যের ১০ম বর্ষে ইউরোপীয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-ইইউবি

অহিদুল ইসলাম অন্তর, ইউরোপীয়ান ইউনিভার্সিটি প্রতিনিধি
আপডেট সোমবার, ১৫ মার্চ, ২০২১
ইউরোপীয়ান ইউনিভার্সিটি

রাজধানীর গাবতলীতে অবস্থিত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইউরোপীয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-ইইউবি প্রতিষ্ঠার নয় বছর শেষ করে ১০ম বছরে পা রেখেছে। বিশ্ববিদ্যালয়টি ২০১২ সালের ১৪মার্চ প্রতিষ্ঠা লাভ করে এরইমধ্যে দেশের শীর্ষ অবস্থান দখল করে নিয়েছে। ইউজিসি’র প্রকাশিত সর্বশেষ বাৎসরিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে দেখা যায়, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের মধ্যে শিক্ষার্থী অনুপাতে তৃতীয় এবং গবেষণায় অর্থ খরচের দিক থেকে অষ্টম অবস্থানে রয়েছে ইইউবি।

বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য অধ্যাপক ডক্টর মকবুল আহমেদ খান বলেন, ২০১২ সালের ১৪মার্চ ইউরোপীয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ- এর যাত্রা শুরু হয়। জ্ঞান, দক্ষতা এবং যোগ্যতার সুসমন্বয়ে উচ্চশিক্ষা নিশ্চিত করা আমাদের উদ্দেশ্য। সুলভমূল্যে উচ্চমানের শিক্ষা নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপের মাধ্যমে ইউরোপীয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ পরিচালিত হচ্ছে। জ্ঞান, দক্ষতা এবং যোগ্যতার সুসমন্বয়ে প্রজন্মের পর প্রজন্মকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে ইউরোপীয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ বিশেষ ভূমিকা পালন করে যাবে বলে আমি আশাবাদী। বিশ্ববিদ্যালয়টির গুণগত উন্নয়নে সবাইকে একযোগে কাজ করারও আহ্বান জানান তিনি।

উল্লেখ্য, অধ্যাপক ডক্টর মকবুল আহমেদ খান একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে বিএ (অনার্স) ও এমএ ডিগ্রি অর্জন এবং মস্কো টেক্সটাইল ইউনিভার্সিটি থেকে ১৯৭৬ সালে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেছেন। অধ্যাপনা করেছেন দেশ-বিদেশের ৫টি বিশ্ববিদ্যালয়ে। যার মধ্যে ইংল্যান্ডের ব্রাডফোর্ড ইউনিভার্সিটি এবং নিউজিল্যান্ডের ওটাগো ইউনিভার্সিটির নাম উল্লেখযোগ্য। তিনি একনাগাড়ে ১৬ বছর বিশ্বব্যাংকের টেক্সটাইল এ্যাডভাইজার হিসেবে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে কাজ করেছেন।


এই বিভাগের আরো খবর
greengrocers

Categories

Archives